আশুলিয়ায় শিক্ষার্থী সহ সাংবাদিকদের উপর সন্ত্রাসী হামলা।

0
8

শাকিল শেখ

সাভার করেসপন্ডেন্ট

আশুলিয়ার নাইটিংগেল মেডিকেল কলেজের শিক্ষার্থীদের মাইগ্রেশনের দাবিতে সড়ক অবরোধ কর্মসূচি পালন কালে শিক্ষার্থীদের উপরসহ সাংবাদিকদের উপর হামলা করে। ভিডিও ধারণে বাঁধা দিয়ে ক্যামেরা ছিনিয়ে নেওয়ার হুমকী সন্ত্রাসী বাহিনীর।

বুধবার (১৮ জানুয়ারি) সকাল ১১ টার দিকে আশুলিয়া বাইবাইল আব্দুল্লাহপুর মহাসড়কের সরকার মার্কেট এলাকার নারী ও শিশু হাসপাতালের সামনে অবরোধ করে এই বিক্ষোভ কর্মসূচি পালন কালে এঘটনা ঘটে।

বিক্ষোদ্ধ শিক্ষার্থীরা জানান,পুলিশ আমাদের কে বুঝিয়ে সড়ক থেকে সরিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করলে এসময় একদল সন্ত্রাসী বাহিনী আমাদের উপর অতর্কিত হামলা চালিয়ে আমাদের কয়েকজন শিক্ষার্থীকে মারধর করে আহত করে। এসময় তারা সাংবাদিকদেরও হুমকি ধামকি প্রদান করে তাদের ক্যামেরা ছিনিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করে।

আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীদের অভিযোগ,
নাইটিংগেল মেডিক্যাল কলেজের বিএমডিসির অনুমতি নেই। এজন্য তারা অন্যত্র মাইগ্রেশন করতে গেলে মেডিক্যাল কলেজ কর্তৃপক্ষ একটি রিট করে। ফলে তারা মাইগ্রেশন করতে পারছেন না। এমন পরিস্থিতিতে তারা মাইগ্রেশনের দাবিতে আন্দোলনে নামতে বাধ্য হয়েছেন।

কলেজটির শিক্ষার্থী ইমরান খান ইমনসহ অনেকেই জানান, মেডিকেল কলেজ কর্তৃপক্ষ আমাদের মিথ্যা আশ্বাস ও আদালতের কিছু কাগজপত্র দেখিয়ে ভর্তি করায়। প্রথম বর্ষে বিএমডিসি রেজিস্ট্রেশন এনে দেবে বলে তারা প্রতিশ্রুতি দেয়। কিন্তু তারা এখনো রেজিস্ট্রেশন এনে দিতে পারেননি। কলেজের শিক্ষা ব্যবস্থা সংক্রান্ত সব সুযোগ-সুবিধা থেকেও তাদের বঞ্চিত করেছে।

তিনি আরো বলেন, আমরা সকালে মহাসড়ক অবরোধ কর্মসূচি পালন করেছি। এখন কলেজের ভেতর শান্তিপূর্ণভাবে অবস্থান কর্মসূচি পালন করছি। দাবী আদায় না হওয়া পর্যন্ত তারা এ আন্দোলন করে যাবে বলেও জানান।

মাইগ্রেশন না দিলে ৪৫ জন শিক্ষার্থীর জীবন অনিশ্চিত হয়ে পড়বে বলেও জানান তারা।

এব্যাপারে নাইটিংগেল মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ রুহুল কবির রুমি বলেন, আমরা শিক্ষার্থীদের দাবির বিষয়টি নিয়ে অথরিটির সাথে কথা বলেছি। তাদের দাবি নিয়ে আমরা কাজ করছি।

এবিষয়ে আশুলিয়া থানার পরিদর্শক (ইন্টেলিজেন্স) মো. মিজান বলেন, আমরা শিক্ষার্থীদের বুঝিয়ে সড়ক থেকে সরিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করছি। আশা করি দ্রুত সড়কে যান চলাচল স্বাভাবিক হবে।