ধামরাইয়ের সুয়াপুরে শ্যামল চন্দ্র মনিদাশ এর মোদির দোকান ভাংচুর স্বর্ন ও টাকা লুট।

0
88

 

মোঃ সিরাজুল ইসলাম ধামরাই (ঢাকা) প্রতিনিধি!! ঢাকার ধামরাইয়ে সুয়াপুর ইউনিয়নের সুয়াপুর বাজারের পচ্চিম পাশে মোশাররফ ডাক্তারের দোকানের সামনে শ্যামল চন্দ্র মনিদাশ এর মোদির দোকান ভাংচুর ও টাকা লুটের ঘটনা ঘটেছে।

মঙ্গলবার ১৮ অক্টোবর সকালে দোকানের বাকি টাকা চাওয়ার এঘটনা ঘটে। মোদি দোকানদার শ্যামল চন্দ্র মনিদাশ বলেন গ্রাম পুলিশ নবাচন্দ্র মনিদাশ ও তার মেয়ের স্বামী সজীব চন্দ্র মনিদাশ আমার দোকান থেকে বিভিন্ন সময় বাকিতে সদাই ক্রয় করিত। তাদের সাথে পূর্ব শত্রুতার সূত্রপাতে আমার দোকান থেকে আর সদাই ক্রয় করেনা, দীর্ঘদিন যাবত টাকা না দেওয়ায় তাদের কাছে টাকা চাইতে গেলে দেই দিচ্ছি এমন বলে আসছে। আজ সকালে তাদের কাছে টাকা চাইলে আমার সাথে খারাপ আচরণ করে এবং একপর্যায়ে বাকবিতন্ডা তৈরি হয়। পরে তারা পরিবারের ৯/১০ জন লাঠি সোটা নিয়ে এসে আমার দোকানে অনাধিকার প্রবেশ করিয়া আমার উপর হামলা চালায় ও দোকান ভাংচুর করে। আমাকে রক্ষা করার জন্য ভাতিজী এগিয়ে আসলে তার উপর চলে মারপিট, এবং গলায় থাকা আটআনা ওজনের স্বর্নের চেইন ছিনিয়ে নিয়ে যায় সেই সাথে ক্যাশ বাক্সে মোকাম করার ৬০ হাজার টাকা লুট করে নিয়ে যায়। এবং দোকান থেকে তৈল সাবান সহ বিভিন্ন সামগ্রী প্রায় ৩৫ হাজার টাকার মালামাল নিয়ে যায়। পরে এই বিষয়ে কোনো মামলা মোকদ্দমা করলে প্রাণ নাশের হুমকি দেয়। এবিষয়ে সবার পরামর্শে থানায় অবগত করি থানা পুলিশ এসআই সাখাওয়াত হোসেন আমার দোকান পরিদর্শন করেন। এবং বিকেলে ধামরাই থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করি।

এবিষয়ে ধামরাই থানার সুয়াপুর বিট পুলিশ কর্মকর্তা এসআই মোঃ সাখাওয়াত হোসেন বলেন এই বিষয়ে একটি অভিযোগ পেয়েছি দোকানের বাকি টাকা চাওয়ায় তাদের মধ্যে হাতাহাতি হয়েছে, সুষ্ঠু তদন্তের মাধ্যমে আইনগত ব্যবস্থাগ্রহণ করা হবে।