ধামরাইয়ে ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে এক নারীর সংবাদ সম্মেলন।

0
66

মোঃ সিরাজুল ইসলাম ধামরাই (ঢাকা) প্রতিনিধি” ঢাকার ধামরাইয়ে ১০ নং সোমভাগ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান প্রভাশক মোঃ আওলাদ হোসেনের অনৈতিক কার্যকলাপ, নারী শ্লীলতাহানী, ও নারী নির্যাতনকারী সহ একাধিক অনৈতিক কার্যকলাপের সুনির্দিষ্ট অভিযোগ এনে ধামরাই উপজেলা প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করেন সুরাইয়া আক্তার নামে ভুক্তভোগী এক নারী।

শুক্রবার (৫ই আগষ্ট) সকাল ১১ টার সময় ধামরাই উপজেলা প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলনে ভুক্তভোগী নারী সুরাইয়া আক্তার বলেন- আমি ধামরাই সোমভাগ ইউনিয়নের বাসিন্দা, আমি পৈত্রিক ওয়ারিশ সূত্রে গাওয়াল মৌজায় ০৮ শতাংশ জমির মালিক। আমি ও আমার পরিবারের সদস্যরা উক্ত জমিতে একতলা ছাদ বিশিষ্ট বিল্ডিং করতে যাই। এবং ছাদ বাদে, কাজও প্রায় শেষের দিকে। জমিজমা নিয়ে আমার ভাই আব্দুল মালেকের সঙ্গে বিরোধ রয়েছে। এ নিয়ে আদালতে মামলা চলছে। এরপরও আমার ভাইয়ের পক্ষাবলম্বন করে সোমভাগ ইউপি চেয়ারম্যান প্রভাষক আওলাদ হোসেন গত ২৯ জুলাই দুপুর আড়াইটার দিকে আমাকে একা তার ইউনিয়ন পরিষদ কার্যালয়ে বন্ধ থাকা সত্যও ডেকে নেন। এরপর তিনি আমাকে আদালত থেকে মামলা তুলে নেওয়ার জন্য হুমকি দেন । আমি তার কথামতো মামলা তুলতে রাজি না হওয়ায় তিনি ক্ষিপ্ত হয়ে আমাকে অকথ্য ভাষায় গালাগাল ও হেনস্তা করেন।

এব্যাপারে আমি ধামরাই থানায় অবগত হয়ে অভিযোগ করি। এবং তার পরে থেকে আওলাদ চেয়ারম্যানের কারণে আমি চরম নিরাপত্তা হীনতায় দিন যাপন করিতেছি। বিষয়টি খতিয়ে দেখার জন্য স্বরজমিনে তদন্ত পূর্বক প্রশাসনের বিভিন্ন দপ্তরের। ঘটনার সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ তদন্ত করে চেয়ারম্যান আওলাদ হোসেন এর বিরুদ্ধে যথাযথ আইনগত ব্যবস্থা ও দেশের প্রচলিত আইন অনুযায়ী শাস্তি দাবী করেন, সেই সাথে সাংবাদিকদের সার্বিক সহযোগিতা কামনা করেন সুরাইয়া আক্তার। এ’সময় ধামরাই উপজেলা প্রেসক্লাবের প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ায় সাংবাদিকবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন