মহানবী (সাঃ) কে নিয়ে কটুক্তির প্রতিবাদে নালিতাবাড়ীতে বিক্ষোভ সমাবেশ।

0
9

আমিরুল ইসলাম,

শেরপুর প্রতিনিধি :

ভারতে ক্ষমতাসীন বিজেপির দুই নেতা কর্তৃক মহানবী হযরত মোহাম্মদ (সা.) এর অবমাননা স্বাভাবিকভাবে মেনে নিতে পারছে না বাংলাদেশের ধর্মপ্রাণ মানুষ। এ নিয়ে গত কয়েকদিন ধরে তীব্র সমালোচনা চলছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে।অনেকে মহানবী (সা.) এর প্রতি ভালবাসা ও শ্রদ্ধা জানিয়ে বিভিন্ন পোস্টও দিচ্ছেন সোশ্যাল মিডিয়ায়।

ভারতের ক্ষমতাসীন দল বিজেপির দুই নেতার বিতর্কিত মন্তব্যের প্রতিবাদে শুক্রবার (১০ জুন) বাদ জুম্মা বিক্ষোভ মিছিল করেছেন শেরপুরের নালিতাবাড়ী উপজেলার নন্নীবাজার মার্কাজ মসজিদের মুসল্লী ও তৌহিদী জনতার ব্যানারে সর্বস্তরের মুসলিমরা।

শুক্রবার নামাজের পর উপজেলার নন্নী বাজার মার্কাজ মসজিদ থেকে বিক্ষোভ মিছিলটি শুরু হয়ে প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে ইউনিয়ন পরিষদ চত্বরে এসে সংক্ষিপ্ত সমাবেশ করে। এ সময় ‘বিশ্বনবীর অপমান, সইবে নারে মুসলমান, ‘ইসলামের শত্রুরা, হুঁশিয়ার সাবধান, ইত্যাদি স্লোগান দেন সর্বস্তরের তৌহিদী মুসলিম জনতা।
সভায় বক্তব্য রাখেন- নন্নী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও ইউপি চেয়ারম্যান বিল্লাল হোসেন চৌধুরী, সাবেক চেয়ারম্যান মাহবুবুর রহমান রিটন, নন্নীবাজার মার্কাজ মসজিদের ইমাম ও খতিব মাও মুফতি সালমান মুনির, মাও: হাফিজুর রহমান, শওকত আলী মাষ্টার, ইউপি মেম্বার ও নন্নী ইউনিয়ন বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আব্দুল্লাহ, মাও: ফখরুল ইসলাম, আওয়ামী লীগ নেতা আব্দুল্লাহ আল মাহমুদ, মাও : আবু সাঈদ প্রমুখ।
সমাবেশে বক্তারা বলেন, রাসুলকে (সা.) নিয়ে মিথ্যাচার করেছেন বিজেপির দুই নেতা। এর প্রতিবাদে মুসলমানরা আজ জেগে উঠেছে সারা দুনিয়ায়।

পাঁচগাঁও দাখিল মাদ্রাসা সুপার মাও : জাহেদ উল্লার উপস্থাপনায় বক্তারা আরো বলেন, বিশ্বনবীকে নিয়ে কটূক্তি কোনোভাবে বরদাশত করা হবে না। জনতাকে ভারতীয় পন‍্য বর্জনের অনুরোধ ও সরকারের প্রতি আহ্বান থাকবে সরকারও এর প্রতিবাদ নিন্দা জানাবে।

সমাবেশে বিভিন্ন এলাকার হাজারো মানুষ বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশে স্বতঃস্ফূর্তভাবে অংশগ্রহণ করেন।

উল্লেখ্য, সম্প্রতি ভারতীয় একটি টেলিভিশন বিতর্কে অংশ নিয়ে মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সা.) ও তার স্ত্রী আয়েশা (রা.) সম্পর্কে অবমাননাকর বক্তব্য দেন নূপুর শর্মা। পরে একই বিষয়ে টুইটারে পোস্ট দেন নাভিন কুমার জিন্দাল। এ নিয়ে মুসলিম সম্প্রদায়ের মধ্যে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়।