ধামরাইয়ে সতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থীর কর্মিকে লাঞ্ছিত করার অভিযোগ আওয়ামী সমর্থনের কাছে।

0
73

 

মোঃ সিরাজুল ইসলাম ধামরাই ঢাকা প্রতিনিধি” ধামরাইয়ে সূতিপাড়া ইউপি নির্বাচনে চশমা প্রতিকের সতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থীর কর্মিকে গলার কলার ধরে লাঞ্ছিত করার অভিযোগ। ধামরাই উপজেলা চেয়ারম্যান এর হাতে।

আগামী ১৫ জুন সূতিপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের ভোট গ্রহন উপলক্ষে কালামপুর চৌরাপাড়া এলাকায়
প্রচার প্রচারনার সময় সতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী মোঃ রমিজুর রহমান রুমা’র চশমা প্রতিকে ভোট চাওয়ার সময়। ওপর দিক থেকে আসা আওয়ামী লীগের মনোনীত নৌকা প্রতিকের চেয়ারম্যান প্রার্থী মোঃ রেজাউল করিম রাজা পক্ষে নৌকা মার্কায় ভোট চাওয়ার সময় উপজেলা চেয়াম্যান মোঃ মোহাদ্দেস হোসেন। সাদ্দাম হোসেন নামে একজনকে প্রকাশ্যে গলার কলার ধরে লাঞ্ছিত করার অভিযোগ পাওয়া গেছে।
ভুক্তভোগী সাদ্দাম হোসেন বলেন, ‘আমরা কালামপুর চৌরাপাড়া এলাকায় স্বতন্ত্র প্রার্থী রোমা ভাইয়ের পক্ষে ভোট চাচ্ছিলাম। হঠাৎ করেই ধামরাই উপজেলা চেয়ারম্যান মোহাদ্দেস হোসেন এসে আমার কলার ধরে। কি কারণে এমন করল কিছুই বুঝতে পারলাম না। আমরা একজনের জন্য ভোট চাইতেই পারি। তাই বলে কি এমন আচরণ করতে পারে।
এ বিষয়ে সূতিপাড়া ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থী রেজাউল করিম রাজা বলেন, এ বিষয়ে আমি কিছুই শুনিনি।
চশমা প্রতীকের স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী মো. রমিজুর রহমান চৌধুরী (রোমা) বলেন, ‘উপজেলা নির্বাচন অফিসে অভিযোগের প্রস্তুতি চলছে। এবিষয়ে উপজেলা চেয়ারম্যান মোহাদ্দেস হোসেনের মোবাইল ফোনে একাধিকবার যোগাযোগ করা হলেও তিনি কল রিসিভ করেননি।

ধামরাই উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা আয়শা আক্তার তিনি মুঠোফোনে বলেন। নির্বাচনী আচরণবিধি অনুযায়ী প্রার্থীর পক্ষে এমপি মন্ত্রী- সহ সরকারি সুবিধাভোগী গুরুত্বপূর্ণ কোনো ব্যক্তি প্রচারণা চালাতে পারেন না। একজন উপজেলা চেয়ারম্যান ইউপি নির্বাচনের প্রচারণায় যেতে পারেন না। কেউ যদি এ বিষয়ে অভিযোগ করেন তা হলে তা আচরণবিধি লঙ্ঘন বলে গণ্য হবে।