শেরপুরে প্রধানমন্ত্রীকে নিয়ে কটুক্তি,অভিযোগের ১ মাসেও নেই কোন ব্যবস্থা।

0
3
     অভিযোগকারীর সংবাদ সম্মেলন
এজেড হীরা
শেরপুর (বগুড়া) প্রতিনিধি:
বগুড়ার শেরপুরে  আওয়ামী লীগের সভাপতি ও গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনাকে নিয়ে বিগত ১ মাস পূর্বে অশ্লীল কটুক্তি ও ব্যঙ্গমূলক ভাষা  প্রয়োগ করে একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম টিকটকে প্রকাশ করায়    বাবুল আহম্মেদ নামের এক ব্যক্তি বাদি হয়ে আপলোড কারী সুলতান মাহমুদের বিরুদ্ধে শেরপুর থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়েরের ১ মাস অতিবাহিত হলেও পুলিশের পক্ষ থেকে কোন আইনি ব্যবস্থা না নেয়ায় অভিযোগকারী  প্রান সংশয়ে দিনযাপন করলেও প্রধানমন্ত্রী কে নিয়ে কটুক্তি কারী  এলাকায় বীরদর্পে  চলাফেরা করছে ।
এঘটনায় অভিযোগের বাদি  গত  ১৯ মে বৃহস্পতিবার দুপুরে বগুড়ার শেরপুর উপজেলা প্রেসক্লাবে হাজির হয়ে  সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করেন। সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে বাবুল আহম্মেদ বলেন, গত ১৮ এপ্রিল সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম টিকটকে উপজেলার সুঘাট ইউনিয়নের বিনোদপুর গ্রামের মৃত আব্দুস সাত্তারের পুত্র  সুলতান মাহমুদ তার নামীয় টিকটক আইডিতে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে উদ্দেশ্য করে কটুক্তিমুলক অশ্লীল ভাষা ব্যবহার করে একটি ভিডিও তৈরী করে পোস্ট দেয়।
বিষয়টি আমি দেখতে পেয়ে সুলতান মাহমুদকে ভিডিওটি মুছে ফেলতে বললে সে আমাকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করে এবং মারপিটসহ প্রাণ নাশের হুমকী দিয়ে আসছে।
এ ঘটনার বিষয়ে আমি এলাকার কয়েকজন সচেতন ব্যক্তিকে অবগত করি এবং অভিযুক্ত  সুলতান মাহমুদের বিরুদ্ধে আইনী ব্যবস্থা নিতে ওইদিন রাতেই শেরপুর থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করি।
শেরপুর থানায় লিখিত অভিযোগ দেয়ার জন্য অভিযুক্ত সুলতান মাহমুদ বিভিন্নভাবে আমাকে হুমকী-ধামকী দিয়ে আসছে। অপরদিকে থানায় অভিযোগ দেয়ার ১ মাস অতিবাহিত হলেও থানা পুলিশ অজ্ঞাতকারণে সুলতান মাহমুদের বিরুদ্ধে আইনী ব্যবস্থা নেন নি  মর্মে সাংবাদিক সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য বাবুল আহমেদ অভিযোগ করে এসব কথা বলেন । প্রধানমন্ত্রীকে নিয়ে কটুক্তি করেও প্রশাসনিক ঝামেলা মুক্ত  কটুক্তিকারী বীরদর্পে  এলাকায় নানাবিধ অপপ্রচার চালিয়ে  যাচ্ছে । পুলিশের পক্ষ থেকে তার বিরুদ্ধে কোন ব্যবস্থা না নেয়ায় সুবিচার, প্রাণ সংশয় ও নিরাপত্তা হীনতায়   ভুগছেন ভুক্তভোগী বাদি। সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বিরুদ্ধে অশ্লীল ভাষায় ভিডিও তৈরীকারির বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করতে সংশ্লিষ্ট উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের কাছে অনুরোধ জানান।
এ ব্যাপারে প্রধানমন্ত্রীর বিরুদ্ধে কটুক্তিকারী সুলতান মাহমুদ বলেন, আমার টিকটক আইডি হ্যাক করে অন্য কেউ ওই ভিডিও ছেড়েছে। ওই ঘটনায় থানায় অভিযোগ হলে ওসি সাহেব আমাকে ডেকে নিয়ে সতর্ক করে দিয়েছে।
এ বিষয়ে সুঘাট ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি মো. শাহাদৎ হোসেন বলেন, সুলতান মাহমুদ ওরফে লিটন মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে নিয়ে ব্যঙ্গ ভাষা প্রয়োগ করে টিকটকে যে বক্তব্য দিয়েছে তা অত্যন্ত অপমান জনক। আমি প্রশাসনের কাছে তার শাস্তির দাবি জানাচ্ছি।
অপর দিকে এ ঘটনায় সুঘাট ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ও ইউনিয়ন পরিষদের  চেয়ারম্যান মনিরুজ্জামান জিন্নাহ বলেন, বিষয়টি আমি শুনেছি ,
মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে নিয়ে কটুক্তি একটি ন্যাক্কারজনক  ধৃষ্টতার শামিল।  আমি এর দৃষ্টান্তমুলক শাস্তি দাবি করছি।
এ ব্যাপারে শেরপুর উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক সুলতান মাহমুদ সংবাদ মাধ্যম কে বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে নিয়ে কটুক্তির দায়ে থানায় অভিযোগ দায়েরের পরেও এখনো
কোন ব্যবস্থা নেয়া হয়নি এটা খুবই দুঃখজনক।
এ ঘটনায় অতি দ্রুত মামলা দায়ের করে দোষীর বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করার জন্য জোর দাবি জানান উপজেলা আওয়ামী লীগের এই নেতা।
এ ব্যাপারে শেরপুর থানার অফিসার ইনচার্জ মো. শহিদুল ইসলাম বলেন, অভিযোগ দিয়েছে কিনা দেখতে হবে।