পরকিয়ার জেরে সংঘটিত হত্যাকান্ডে নিরীহদের নামে মামলা দেয়ার প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন।

0
3
খোরশেদ আলম
 রূপগঞ্জ(নারায়ণগঞ্জ) প্রতিনিধিঃ 
নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জে পরকিয়ার জেরে সংঘটিত একটি হত্যা মামলায় স্থানীয় ইউপি সদস্যসহ গ্রামের নিরীহদের অভিযুক্ত করে মামলা দেয়ার প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন করেছেন নিরীহদের পরিবার ও এলাকাবাসি। ৫ এপ্রিল মঙ্গলবার দুপুরে মুড়াপাড়াস্থ রূপগঞ্জ প্রেসক্লাব মিলনায়তনে এ সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। এ সময় সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে ইউপি সদস্য সুমন মুন্সির বোন পারভীন বেগম বলেন, মুড়াপাড়া ইউনিয়নের মাছুমাবাদ এলাকার বাসিন্দা ওহাব মিয়ার স্ত্রী আকলিমা বেগমের সাথে বন্দর ২৭নং নাসিক ওয়ার্ড বাসিন্দা নজরুল ইসলামের পরকিয়া প্রেমের সম্পর্ক তৈরী হয়। সে সুত্রধরে বিগত ২৯ মার্চ একই গ্রামের ওহাব মিয়ার স্ত্রী আকলিমা বেগমের সাথে দেখা করতে মাছুমাবাদ চলে আসে নজরুল । এ ঘটনা জেনে স্বামী ওহাব মিয়া ও তার ছেলে রনি মিয়া ক্ষুব্ধ হয়ে পরকিয়া প্রেমিক নজরুলকে মারধর করে। পরে বিষয়টি এলাকাবাসি জানতে পেরে ইউপি সদস্য হিসেবে সুমন মুন্সিকে অবহিত করে। পরে মেম্বার সুমন মুন্সি ভুলতা ইউপি চেয়ারম্যান ব্যারিষ্ট্রার আরিফুল হক ভুইয়াকে অবহিত করে আহত নজরুলকে চিকিৎসার জন্য ওহাবকে দায়িত্ব দিয়ে স্থানীয় হাসপাতালে
পাঠায়। পরে জানতে পারি ঢাকা মেডিকেল নেয়ার পর ওই নজরুল মারা যায়। কিন্তু একটি পক্ষ শত্রুতাবশত নিহত নজরুলের পরিবারকে ভুল বুঝিয়ে মুল অভিযুক্ত ওহাব মিয়া ও তার ছেলে রনিকে বাদ দিয়ে ইউপি সদস্য সুমন মুন্সিসহ আরো ১৩ জনকে আসামী করে রূপগঞ্জ থানায় মামলা দায়ের করেন। এতে প্রকৃত আসামী নিস্তার পেয়ে নির্দোষী ও নিরীহ লোকজন হয়রানীর শিকার হবেন। তাই অবিলম্বে ওই মামলা থেকে নিরীহদের বাদ দেয়ার দাবী জানাচ্ছি।
এ সময় সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন, অভিযুক্ত ইউপি সদস্য সুমন মুন্সির বোন পারভীন বেগম, অন্যান্য অভিযুক্তের পরিবারের সদস্য নাজমা বেগম. নাসরিন, বীথি, আমেনা বেগম, সাথী, বাদল মিয়া, মফিজুল, মারুফ, রাব্বি মিয়াসহ এলাকাবাসি।