নান্দাইলে সরকারি ভাতা চলে যাচ্ছে মোবাইলে।।

0
21

তৌহিদুল ইসলাম সরকার,

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অঙ্গিকার বাস্ত-বায়নের লক্ষ্যে ময়মনসিংহের নান্দাইলে সমাজ সেবা কার্যালয়ে শতভাগ বয়স্ক,বিধবা,স্বামী নিগৃহিতা নারী ও প্রতি-বন্ধীদেরকে সামাজিক নিরাপত্তা বেষ্টনীর আওতায় আনার কার্যক্রম চলছে।

স্থানীয় সংসদ আলহাজ্ব আনোয়ারুল আবেদীন খান তুহিন ও নান্দাইল উপজেলা চেয়ারম্যান হাসান মাহমুদ জুয়েল ও সমাজসেবা অফিসার ইনসান আলী যৌথভাবে সেসমস্ত উপকার ভোগীদেরকে শতভাগ ভাতা প্রদান নিশ্চিত করণে ব্যাপক কর্ম-তৎপরতা চালিয়ে যাচ্ছেন।

বয়স্ক,বিধবা, প্রতিবন্ধী ভাতা ও প্রতিবন্ধী শিক্ষা উপ-বৃত্তি ভাতাভোগী ৩৬ হাজার ৮৫৭ জন মানুষের মোবাইল ফোনে টাকা পৌঁছে দিতে নিরলস ভাবে কাজ করছেন উপজেলা সমাজ সেবা কার্যালয়ের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা।
ভাতা-ভোগীদের মোবাইলে নগদ হিসাব খোলা ও মোবাইল নম্বর পরি-বর্তনের কাজ করে দিচ্ছেন তারা। ভাতা ভোগীরা জানান, তাদের ভাতা পৌঁছে দেওয়ার লক্ষ্যে সমাজ সেবা কার্যালয়ের প্রতিটি কর্মকর্তা-কর্মচারী করোনা দুর্যোগের মধ্যেও রাত-দিন নিরলস ভাবে পরিশ্রম করে যাচ্ছেন।

উপজেলা সমাজ সেবা অফিসার ইনসান আলী জানান,ভাতা-গ্রহীতাদের কষ্ট ও দুর্ভোগ লাঘবের জন্য জিটুপি পদ্ধতিতে ভাতা প্রদানের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছে সরকার।
এতদিন ভাতা গ্রহীতাদের ব্যাংকে গিয়ে দীর্ঘ সময় অপেক্ষা করে টাকা গ্রহণ করতে হতো। এখন থেকে ভাতার টাকা মোবাইল ফোনে পৌঁছে দিতে কাজ শুরু করে সমাজ সেবা অধিদপ্তর। ইতিমধ্যে মোবাইল ফোনে টাকা পেতে শুরু করেছে ভাতা ভোগীরা।

উপজেলা চেয়ারম্যান হাসান মাহমুদ জুয়েল বলেন,মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অঙ্গিকার বাস্ত বায়নে চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি । আমি চাই আমার উপজেলায় প্রকৃত উপকার ভোগীরা যেন শতভাগ ভাতা সুবিধার আওতায় আসে।

সংসদ সদস্য আলহাজ্ব আনোয়ারুল আবেদীন খান তুহিন বলেন,মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আমার উপজেলায় শতভাগ ভাতা প্রদান করেছেন।
এইজন্য প্রধান-মন্ত্রীকে ধন্যবাদ জানাচ্ছি। স্বচ্ছতার মাধ্যমে, দুর্নীতি মুক্ত ভাবে প্রকৃত উপকার ভোগীরা যেন ভাতা কার্য ক্রমের আওতায় আসে সেই চেষ্টাই করছি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here