ধামরাইয়ে পদ্মা সেতু’ বানিয়ে ফেসবুকে ভাইরাল স্কুলছাত্র।

0
104

মোঃ সিরাজুল ইসলাম

ধামরাই (ঢাকা) প্রতিনিধিঃ

ঢাকার ধামরাইয়ে নিজ বাড়ির আঙ্গিনায় ‘পদ্মা সেতু’ বানিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ফেসবুকে প্রশংসায় ভাসছেন স্কুলছাত্র সোহাগ। তার বানানো এই সেতুটি দেখতে ভিড় করছেন সাধারণ মানুষ।
সোহাগ ধামরাইয়ের সুতিপাড়া এলাকার কৃষক মোহাম্মদ সুলতান আলীর ছেলে। সে ভালুম আতাউর রহমান খান স্কুল এন্ড  কলেজে ব্যবসা শাখার দশম শ্রেণির শিক্ষার্থী।

নির্মাতা সোহাগ জানায় সে ২০২০ সালের নভেম্বর মাসে সেতুটির নির্মাণ কাজ শুরু করে। এর আগে ২০১৯ সালে একটি সেতু তৈরি করেছিল সে। তবে সেতুটি শুধু মাটি ও বাঁশ দিয়ে তৈরি করায় নির্মাণের কিছু দিন পরই ভেঙে নষ্ট হয়ে যায়। পরে হুবহু পদ্মা সেতু বানানোর পরিকল্পনা করে। পরিকল্পনা অনুযায়ী গত বছরের ১ নভেম্বর নির্মাণ কাজ শুরু করে। দীর্ঘ পাঁচ মাস পর ২৬ মার্চ তার পদ্মা সেতু বানানোর কাজ শেষ হয়।

সোহাগ জানায়, সেতুটি তৈরিতে মাটি, বাঁশ, সিমেন্ট, মোবাইলে ব্যবহার করা ছোট বাতি ও সাদা-কালো রঙ ব্যবহার করেছে সে। বাড়ির আঙ্গিনায় এই পদ্মা সেতু তৈরি করেছে সে। সেতুটিতে চারটি লেন করা হয়েছে। স্থাপন করা হয়েছে বাতি। নিচ দিয়ে তৈরি করা হয়েছে রেললাইন। দুই লেনের মাঝখানে ফুলের চারাসহ এক প্রান্তে রয়েছে চেকপোস্ট।

এসময় সোহাগের বাবা সুলতান আলী বলেন, ‘যখন সোহাগ এই সেতুটি বানাতে শুরু করে তখন লেখাপড়ায় তেমন মনোযোগ ছিল না। এজন্য সোহাগকে অনেক বকাঝকা করতাম, ধমক দিয়ে বলতাম কি করচ এগুলো। এখন সোহাগের বানানো পদ্মা সেতু দেখতে দূর-দূরান্ত থেকে মানুষ আসছে। এতে গর্বে বুক ভরে যাচ্ছে, আমার ছেলের জন্য সবার কাছে দোয়া চাই।

এসময় মুঠোফোনে সুতিপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান রেজাউল করিম রাজা বলেন, ‘লোকমুখে শুনে আমিও সোহাগের বানানো পদ্মা সেতু দেখতে গিয়েছিলাম। এত অল্প বয়সেই এমন প্রতিভা সত্যিই প্রশংসার দাবিদার। বঙ্গবন্ধুর সোনার দেশে এমন প্রতিভাবানদের প্রতিভা বিকাশে আমি সব ধরনের সহযোগিতা করবো ইনশাল্লাহ

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here