দুলাভাই‌ কর্তৃক শা‌লি ধর্ষ‌ণের পর যৌনপল্লী‌তে বি‌ক্রির চেষ্টা।

0
30

সৈয়দ মেহেদী হাসান 

রাজবাড়ী প্র‌তি‌নি‌ধিঃ

রাজবাড়ীর কালুখালী‌তে চাচা‌তো দুলাভাই‌ মাসুদ ফ‌কি‌র (২৭)’র বিরু‌দ্ধে নবম শ্রেনী‌তে পড়ূয়া এক স্কুল ছাত্রী‌ ধর্ষ‌ন ও দৌলত‌দিয়া যৌনপল্লী‌তে বি‌ক্রি চেষ্টার অ‌ভি‌যোগ পাওয়া গে‌ছে।

শ‌নিবার সকা‌লে গোয়ালন্দ ঘাট থানা পু‌লিশ সু‌ত্রে এ তথ্য পাওয়া গে‌ছে এবং এ ঘটনায় ওই স্কুল ছাত্রীর বাবা বাদী হ‌য়ে গোয়ালন্দ ঘাট থানায় এক‌টি অ‌ভি‌যোগ দায়ের ক‌রে‌ছেন।

এদি‌কে মুল অ‌ভিযুক্ত মাসুদ ফ‌কিরকে আটক ও ওই স্কুল ছাত্রী‌কে উদ্ধার ক‌রে‌ছে পু‌লিশ। আটককৃত মাসুদ কালুখালী উপ‌জেলার দূর্গাপুর এলাকার আব্দুল জ‌লিল ফ‌কি‌রের ছে‌লে।

জানা‌গে‌ছে, ভ‌ুক্ত‌ভোগী স্কুল ছাত্রী কালুখালীর সা‌নি না‌মে এক যুব‌কের সা‌থে প্রে‌মের সম্পর্ক ছি‌লো। ৭ জানুয়ারী রাতে স্কুল ছাত্রীর চাচা‌তো দুলাভাই মাসুদ ফ‌কির তা‌র বাড়ী‌তে গি‌য়ে সা‌নির সাথে দেখা ক‌রি‌য়ে দেবার কথা ব‌লে কালুখালী রেলও‌য়ে স্টেশ‌নের পা‌শের এক‌টি বাড়ী‌র রু‌মে আট‌কি‌য়ে তার ইচ্ছার বিরু‌দ্ধে জোরপূর্বক ধর্ষণ ক‌রে। পর‌দিন ৮ জানুয়ারী সকা‌লে ব‌লে সা‌নি গোয়ালন্দ ঘাট (দৌলত‌দিয়া) রেলও‌য়ে স্টেশ‌নে আছে। পরবর্তী‌তে মা‌হেন্দ্র‌ (ইঞ্জিন চালিত তিন চাকার যান) যো‌গে দৌলত‌দিয়া পতীতাপল্লীর এক নম্বর গে‌টের সাম‌নে নি‌য়ে আস‌লে অজ্ঞাতনামা দুই ব্য‌ক্তি এ‌সে মাসুদ ফ‌কি‌রের সাথে কথা ব‌লে। এ সময় অজ্ঞাতনামা ব্য‌ক্তিরা মাসুদ ফ‌কির‌কে কিছু টাকা দেয়। পরবর্তী‌তে সে স্কুল ছাত্রী‌কে নি‌য়ে পতীতাপল্লীর ভিতর রওনা হয়। কিছু দুর যাবার পর পল্লীর মে‌য়েদের দে‌খে স্কুল ছাত্রীর স‌ন্দেহ হয় এবং তখন সে ভিত‌রে যে‌তে আপ‌ত্তি ক‌রে। সে সময় জোরপূর্বক ভেত‌রে নেবার চেষ্টা কর‌লে স্কুুল ছাত্রী চিৎকার ক‌রে। তখন স্থানীয়রা ওই স্কুল ছাত্রী‌কে উদ্ধার ও মাসুদ ফ‌কির‌কে আটক ক‌রে পু‌লি‌শে সোপর্দ ক‌রে।

‌গোয়ালন্দ ঘাট থানার ও‌সি আব্দুল্লাহ আল তায়াবীর ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, কালুখালীর এক স্কুল ছাত্রী‌কে কৌশ‌লে তার চাচা‌তো দুলাভাই বাড়ী থে‌কে নি‌য়ে এ‌সে ধর্ষন করে‌ দৌলত‌দিয়া পতীতাপল্লী‌তে বি‌ক্রির চেষ্টা ক‌রে। সে সময় স্থানীয় জনগণ ওই ব্য‌ক্তি‌কে আটক ও স্কুল ছাত্রী‌কে উদ্ধার করে পুলি‌শে দেন। পরবর্তী‌তে এ ঘটনায় ওই স্কুল ছাত্রীর বাবা থানায় এক‌টি অ‌ভি‌যোগ ক‌রে‌ছেন। ঘটনার কারণ উদঘাট‌নের চেষ্টা চল‌ছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here