দেশে আবার বিতর্ক ও অস্হিরতা সৃষ্টির চেষ্টা চলছেঃড.হাছান মাহমুদ।।

0
16
মোঃ সিরাজুল মনির
ব‍্যুরো প্রধান চট্টগ্রামঃ

তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, অনেকে নানা প্রসঙ্গ টেনে সমাজে বিতর্ক ও অস্থিরতা সৃষ্টির অপচেষ্টা করছে। অনেকে আবার এসব অপকর্মকারীদের পৃষ্ঠপোষকতা করছে। তিনি বলেন, কোন ইস্যুতেই বঙ্গবন্ধুর অবমাননা সহ্য করা হবেনা।

তথ্যমন্ত্রী আজ চট্টগ্রাম প্রেসক্লাবের বঙ্গবন্ধু হলে মুজিববর্ষ উপলক্ষ্যে বাংলাদেশ প্রেস কাউন্সিল কর্তৃক চট্টগ্রাম প্রেসক্লাবকে বই বিতরণকালে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন।

তথ্যমন্ত্রী বলেন, বঙ্গবন্ধু ঘুমন্ত বাঙ্গালী জাতিকে স্বাধীনতার স্বপ্নে উজ্জ্বীবিত করেন। মানুষের সবচেয়ে প্রিয়বস্তু নিজের প্রাণ বিসর্জন দেওয়ার মতো প্রেরণাদায়ী মানসিকতা তিনি বাঙ্গালী জাতির মধ্যে জাগ্রত করতে পেরেছেন। এ ঘটনা বিশ্বে বিরল। এ কারনে বঙ্গবন্ধু বাঙ্গালীদের পাশাপাশি সারা বিশ্বের নেতা। কোন বিতর্ক তাঁকে ছুঁতে পারেনা। নানা বিতর্ক বিষয়ে সাংবাদিক সমাজকে সজাগ থাকার আহ্বান জানিয়ে তথ্যমন্ত্রী বলেন, জাতিকে সঠিক পথ দেখানোর গুরুদায়িত্ব অতীতের মতো সাংবাদিকদের এখনো নিতে হবে।

ড. হাছান মাহমুদ বলেন, বঙ্গবন্ধু বাংলাদেশ প্রেস কাউন্সিল গঠন করেছেন। এ প্রেস কাউন্সিলকে আরো শক্তিশালী ও কল্যাণমূখী করার লক্ষ্যে প্রেস কাউন্সিল আইন সংশোধনের পর্যায়ে রয়েছে। সংশোধিত আইন আগামী পার্লামেন্টে উপস্থাপনা করা হতে পারে। সংশোধিত আইন মোতাবেক সংক্ষুব্ধ ব্যক্তির পাশাপাশি সংক্ষুব্ধ গণমাধ্যমকর্মীও প্রেস কাউন্সিলে অভিযোগ দায়ের করতে পারবেন। সংশোধিত আইন পাশ হলে প্রেস কাউন্সিল আরো কল্যাণমূখী কাজ করতে পারবে বলে তিনি এসময় উল্লেখ করেন।

তথ্যমন্ত্রী বলেন, বই জ্ঞানের খোরাক যোগায়। প্রতিভা বিকশিত করার পাশাপাশি বিশ্বকে জানতে বই পাঠের বিকল্প নেই। প্রবীণরা বই পড়ায় অভ্যস্ত হলেও বর্তমান প্রজন্মের মধ্যে বই পড়ার অভ্যাস কম। তারা সোস্যাল মিডিয়ায় বুঁদ হয়ে থাকে। অনেক তথ্য সোস্যাল মিডিয়ায় পাওয়া গেলেও তা বইয়ের আবেদনের তুলনাই অপ্রতুল বলে তিনি উল্লেখ করেন। তিনি বলেন, তরুনদেরকে বই পড়ায় উৎসাহী করতে তুলতে হবে। তাদের বইমূখী করতে হবে। জীবন সংগ্রামে প্রস্তুতির জন্য তরুনদের বই পড়তে হবে। প্রেস কাউন্সিল থেকে প্রাপ্ত বই প্রেসক্লাব সদস্যগণ নিয়মিত পাঠ করবেন বলে তিনি এসময় আশা প্রকাশ করেন।

প্রেস কাউন্সিল চেয়ারম্যান বিচারপতি মোহাম্মদ মমতাজ উদ্দিন আহমেদ এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রেস কাউন্সিল সদস্য ও দৈনিক আজাদী সম্পাদক এম এ মালেক, প্রেস কাউন্সিল সদস্য আবদুল মজিদ, বাংলাদেশ ফেড়ারেল সাংবাদিক ইউনিয়ন সহসভাপতি রিয়াজ হায়দার চৌধুরী, চট্টগ্রাম প্রেসক্লাবের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি সালাহ উদ্দিন মো. রেজা, সাধারণ সম্পাদক চৌধুরী ফরিদ ও প্রেস কাউন্সিল সচিব শাহ আলম বক্তৃতা করেন।

অনুষ্ঠানে প্রেস কাউন্সিল কর্তৃক চট্টগ্রাম প্রেসক্লাবকে বঙ্গবন্ধু মুক্তিযুদ্ধ ও সাংবাদিকতা বিষয়ে ৮৫টি বই প্রদান করা হয়। তথ্যমন্ত্রী চট্টগ্রাম প্রেসক্লাবের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের হাতে এসব বই তুলে দেন। অনুষ্ঠানে জানানো হয়, প্রেস কাউন্সিলের উদ্যোগে চট্টগ্রাম প্রেসক্লাবে বঙ্গবন্ধু কর্ণার করা হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here