রূপগঞ্জে আগাম শীতকালীন সবজি চাষে ব্যস্ত চাষিরা।

0
12
খোরশেদ আলম,
রূপগঞ্জ (নারায়ণগঞ্জ)প্রতিনিধি:
ছয় ঋতুর বাংলাদেশ কার্তিক ও অগ্রাহায়ন এ দুই মাস হেমন্তকাল। হেমন্ত মানেই শীত এর পূর্বাভাস।দিনে প্রচণ্ড গরম। রাতে কিছুটা শীত। রাতের হালকা কুয়াশাই জানান দিচ্ছে শীতের আগমনী বার্তা। শীতের আগমনের সাথে সাথে শীতকালীন সবজি ফলাতে ব্যস্ত চাষিরা।
যদিও শীতকালীন সবজি হিসাবে  টমেটো,ফুলকপি,বাঁধাকপি,শিম,মূলা ও লাউ ইতোমধ্যে বাজারে উঠতে শুরু করেছে। তবে সবজির ভরা মৌসুম না হওয়ায় এখনো শীতকালীন সব ধরনের সবজি বাজারে আসেনি।
সারাদেশের ন্যায় নারায়ণগঞ্জ জেলার রূপগঞ্জ উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় এখন চলছে সবজি চাষের ভরা মৌসুম।  আসছে অগ্রহায়ণে নবান্ন উৎসবের সময় শীতকালীন সবজিতে ভরে উঠবে স্থানীয় হাটবাজার।
এদিকে শীতকালের আগাম সবজিতে রূপগঞ্জের হাটবাজারগুলো ইতোমধ্যে ঝমতে শুরু করেছে। অন্যদিকে ভরা মৌসুমে শীতের সবজি চাষে দারুণ ব্যস্ত রূপগঞ্জ উপজেলার বিভিন্ন এলাকার চাষিরা।
এবার আবহাওয়া অনুকূলে থাকায় রূপগঞ্জে শীতের সবজির বাম্পার ফলন হবে এমনটাই আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন উপ সহকারী কৃষি কর্মকর্তা কায়ছুন রাহাত হাওলাদার।
আগাম শীতের সবজি চাষ করে ভাল দাম পেয়ে খুশি রূপগঞ্জ উপজেলা বিভিন্ন এলাকার চাষিরা।
শীতকালীন ফসলের আগাম চাষে ভাল দাম পাচ্ছে বলে রূপগঞ্জ উপজেলার রুপগঞ্জ সদর ইউনিয়নের দক্ষিণবাগ গ্রামের কৃষক ইসমাইল হোসেন।
এ বছর শীতে সবজির বাম্পার ফলনের পাশাপাশি ভাল দাম পাওয়া যাবে বলে জানান ।
উপজেলার রূপগঞ্জ সদর ইউনিয়নে সবচেয়ে বেশি সবজি চাষ হয়। এখানে আগাম জাতের সবজি চাষ হয়েছে। শিম, মুলা, পালং শাক চাষ হয়েছে। তিনি আরো জানান, রূপগঞ্জের হাটবাজারে পালং শাক বিক্রি শুরু হয়েছে। ৫০-৬০ টাকা কেজি দরে পালং শাক পাওয়া যাচ্ছে। মুলা শাক বিক্রি হচ্ছে প্রতি কেজি ৪০ টাকায়।
কায়েতপাড়া ইউনিয়নের নগর পাড়া গ্রামের কৃষক হাসিম মিয়া।
তিনি বলেন,আগাম সবজি চাষ হয়েছে। অবশিষ্ট জমিতে সবজি চাষ চলছে। যারা আগাম সবজি চাষ করেছিল তারাও খুব ভাল লাভবান হয়েছেন। আশা করছি এবারও শীতকালীন সবজির ভাল দাম পাবে কৃষকরা।
গোলাকান্দাইল ইউনিয়নে শিংলাব গ্রামের কৃষক  বশির মিয়া ও আমলাব গ্রামের কৃষক উচ্ছ্বাস মিয়া জানান,আমরা এ বছর টমেটো চাষ করতেছি। এখনও শীতের কুয়াশা পড়েনি তাই পড়ন্ত আবহাওয়া অনুকূলে রয়েছে।
এ অবস্থা অপরিবর্তিত থাকলে শীতের সবজির ফলন ভাল হবে। কুয়াশা বেশি পড়লে উৎপাদন কমে যেতে পারে।
রূপগঞ্জ  উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা  কায়ছুর রাহাত হাওলাদার জানান,
প্রতিবছরই রূপগঞ্জে আগাম সবজি চাষ করা হয়। এবারও এর ব্যতিক্রম হয়নি। আবার দাম ভালো পাওয়ায় সবজি চাষিরাও লাভবান হচ্ছেন।এখন সর্বত্র চলছে শীতকালীন সবজি চাষের ভরা মৌসুম । ইতোমধ্যে কৃষকরা চারা তুলে জমিতে লাগাতে শুরু করেছে। আবহাওয়া অনুকূলে থাকায় চাষিরা খুশি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here