বরিশালের (শেবাচিম) এ পিসিআর মেশিন পাঠানো হলেও নেই প্রশিক্ষিত ও দক্ষ জনবল।

0
38

মো:মাহবুবুর রহমান মাহবুব।

বরিশাল জেলা ব‌্যুরো।।

দক্ষিন অঞ্চলের কয়েকটি জেলার মানুষের চিকিৎসার মূল ভরসা বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপতাল (শে বা চি মে ক হা) এখানে করোনা পরীক্ষার জন্য পলিমারেজ চেইন রিঅ্যাকশন- পিসিআর মেশিন পাঠানো হলেও নেই প্রশিক্ষিত ও দক্ষ জনবল। এতে সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কা থাকে বলে দাবি সংশ্লিষ্টদের। দক্ষ জনবলের জন্য স্বাস্থ্য অধিদপ্তরকে লিখিতভাবে জানানো হয়েছে বলে জানান মেডিকেলের অধ্যক্ষ। এ ব্যাপারে দ্রুত সমাধানের আশ্বাস দিয়েছেন স্থানীয় সংসদ সদস্য।

করোনাভাইরাস পরীক্ষার পিসিআর মেশিন গত( ৩০ মার্চ) বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পৌঁছায়। এরপর থেকে দ্রুত গতিতে চলছে পিসিআর স্থাপনের কাজ।

তবে এই পিসিআর অপরেট করার জন্য এই মেডিকেল কলেজে নেই যথেষ্ট দক্ষ ও প্রশিক্ষিত জনবল।তাই প্রশিক্ষিত জনবল না হলে সংক্রামণ ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কা থাকে বলে দাবি করেন বরিশাল শেবাচিম এর মাইক্রোবায়োলজি বিভাগীয় প্রধান ডা. এটিএম জাহাঙ্গীর হুসাইন।

এ ব‌্যাপারে তিনি আরো বলেন, পিসিআর পরিচালনার ক্ষেত্রে অত্যন্ত ডেডিকেটেড এবং দক্ষ জনবল দরকার হয়।তা না হলে সংক্রামণটি যে কোন ভাবে ছড়িয়ে পড়তে পারে।

এ ব্যাপারে বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজের প্রফেসর ডা. অশিত ভুষন দাস জানান,ইতিমধ‌্যে প্রয়োজনীয় জনবলের জন্য স্বাস্থ্য অধিদপ্তরকে অবহিত করা হয়েছে ।

স্থানীয় সংসদ সদস্য ও পানিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী কর্নের (অব.)  জাহিদ ফারুক শামিম জানান, স্বাস্থ্যমন্ত্রীর সাথে কথা হয়েছে অচিরেই সমস্যার সমাধান হবে।

মেডিকেলে মাইক্রোবায়োলজি বিভাগে একজন চিকিৎসক ও দুজন টেকনিশিয়ান আছেন। পিসিআর পরিচালনায় এদের নেই কোন অভিজ্ঞতা। দরকার অভিজ্ঞ কমপক্ষে ৩ জন চিকিৎসক এবং ৫ থেকে ৬ জন টেকনিশিয়ান।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here