তৈয়বপুরের স্থানীয় জনপ্রতিনিধির বাড়ি সহ প্রায় ১০০০ বাসা বাড়ির অবৈধ গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন্ন করেছে তিতাস।।

0
40

 

 

মোঃ সোহান আহমেদ সানাউল।

নিজস্ব  প্রতিবেদক।।

 

 

সাভারের আশুলিয়ায় তিতাস গ্যাস ট্রান্সমিশন এন্ড ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি লিমিটেড এর সাভার জোনাল বিপনন অফিস অবৈধ গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন্নকরণ অভিযান পরিচালনা করেছে।  মঙ্গলবার (৪ জানুয়ারি) আশুলিয়ার ইয়ারপুর ইউনিয়নের তৈয়বপুর ও দেওয়ান ইদ্রিস স্কুল ও কলেজ সংলগ্ন এলাকা এবং আশুলিয়ার মাদবর বাড়ি এলাকায় সকাল থেকে বিকাল পর্যন্ত এই অভিযান পরিচালনা করেন। এই অভিযানে আনুমানিক ১ হাজার বাসাবাড়ির অবৈধ গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন্ন করা হয়।

 

তিতাসের এই অভিযান চলাকালে এসময় এখানে  উপস্থিত ছিলেন- তিতাস গ্যাস ট্রান্সমিশন এন্ড ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি লিমিটেড এর সাভার জোনাল বিপনন অফিস (জোবিঅ) এর ব‍্যাবস্থাপনা প্রকৌশলী  আবু সাদাত মোঃ সায়েম।আরো উপস্থিত ছিলেন  উপ-ব্যবস্থাপক আব্দুল মান্নান, উপ-ব্যবস্থাপক ইদ্রিস আলী, সহ-ব্যবস্থাপক সাকিব বিন আব্দুল হান্নান, সহকারী প্রকৌশলী নাজমুল হাসান নয়ন, সহ-কর্মকর্তা এহসানুল হক প্রমুখ সহ তিতাসের কারিগরি টিমের শ্রমিকগণ।

 

অভিযানের ব্যাপারে সাভার তিতাস গ্যাস ট্রান্সমিশন এন্ড ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি লিমিটেড (জোবিঅ) এর ব্যবস্থাপক প্রকৌশলী আবু সাদাত মোঃ সায়েম জানান, ‘আজ সকাল থেকে শুরু হওয়া আমাদের নিয়মিত অবৈধ গ্যাস লাইন উচ্ছেদ অভিযানের অংশ হিসেবে সাভারের আশুলিয়ার মাদবর বাড়ি ও ইয়ারপুর ইউনিয়নের তৈয়বপুর ও দেওয়ান ইদ্রিস স্কুল ও কলেজ সংলগ্ন এলাকায় অভিযান পরিচালিত করেছি। এখানে অবৈধ সংযোগকারীরা আমাদের বৈধ বিতরণ লাইন থেকে ২ ইঞ্চি ও ১ ইঞ্চি লাইনের মাধ্যমে অনেক দীর্ঘ সংযোগ নিয়েছে। আমরা আজ এই সম্পূর্ণ অবৈধ লাইন উচ্ছেদের চেষ্টা করেছি। তাতে আনুমানিক ২ কিলোমিটার লাইন বিচ্ছিন্ন হয়েছে। এতে প্রায় ১ হাজার বাসাবাড়িতে নেয়া অবৈধ সংযোগ বিচ্ছিন্ন হয়েছে।

 

এসময় অবৈধ সংযোগ প্রদানকারীদের ব্যাপারে জানতে চাইলে তিনি গনমাধ‍্যমকে জানান, এদের ব্যাপারে আমরা যথাযথভাবে তথ্য নেবার চেষ্টা করেছি। পাশাপাশি গোয়েন্দা সংস্থাও এব্যাপারে আমাদেরকে তথ্য দিয়ে সাহায্য করছে। এদের বিরুদ্ধে বাংলাদেশ গ্যাস আইনে নিয়মিত মামলা দায়ের হবে বলেও তিনি জানান।

 

তিতাস কর্তৃপক্ষ আরও জানান, ইয়ারপুর ইউনিয়নের ৮ নং ওয়ার্ড মেম্বার মোহাম্মদ আলী তৈয়বপুর এলাকায় এসব অবৈধ গ্যাস সংযোগ প্রদান করেছেন। তিনি তার দুইজন সহযোগী সৌরভ ও শান্ত’র মাধ্যমে এসব অবৈধ সংযোগ থেকে প্রতিমাসে টাকা নিয়ে থাকেন।

তিতাসের অভিযানের ছবি।

তবে মুঠোফোনে এব্যাপারে ইয়ারপুর ইউনিয়নের ৮নং ওয়ার্ড মেম্বার মোহাম্মদ আলীর নিকট অবৈধ গ্যাস সংযোগ প্রদান এবং নিজেও অবৈধ গ্যাস সংযোগ ব্যবহার এর বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘আমার বাড়ির ভিতর থেকে অবৈধ গ্যাসের পাইপ তুলে ফেলা হয়েছে এটা তো আমি জানিই না। আর অবৈধ গ্যাস সংযোগ আমি কাউকে দেই নাই। আমি গাজীপুরে আছি, এসে বিষয়টা দেখবো।

 

অবৈধ গ‍্যাস লাইন উচ্ছেদ অভিযান চলাকালে ওই এলাকায় যেকোনো প্রকার অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে আশুলিয়া থানার উপ-পরিদর্শক কামরুজ্জামান এর নেতৃত্বে বিপুল সংখ্যক পুলিশ সদস্য উপস্থিত ছিলো।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here