তিতাসের অভিযানে অবৈধ কয়েল কারখানার অবৈধ গ্যাসলাইন বিচ্ছিন্ন।।

0
62

 

কয়েল কারখানার অবৈধ গ্যাসলাইন বিচ্ছিন্ন করার ছবি

 

 

মোঃ সোহান আহমেদ সানাউল।

 আশুলিয়া ,সাভার ,ঢাকা ।।

ঢাকার সাভারের আশুলিয়ার মধ্য আউকপাড়া এলাকার অবৈধ ভাবে পরিচালনাকারী সেই মশার কয়েল কারখানার ‘ড্রায়ার রুম’ এ অবৈধভাবে নেয়া গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন্ন করেছে তিতাস গ্যাসের সাভারের জোনাল অফিস।

মঙ্গলবার (৩১ ডিসেম্বর) সকালে তিতাস গ্যাস ট্রান্সমিশন এন্ড ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি লিমিটেড এর সাভার জোনাল অফিসের ব্যবস্থাপক প্রকৌশলী আবু সাদাত মোঃ সায়েম এর নেতৃত্বে ওই বিচ্ছিন্নকরণ অভিযান পরিচালিত হয়।

গতকাল সোমবার (৩০ ডিসেম্বর) একটি অনুসন্ধান টিমের অনুসন্ধানে বেরিয়ে আসে অবৈধ এই বিষাক্ত কয়েল কলকারখানার ভয়াবহ চিত্র। বাংলার রূপ নিউজ 24 এর গতকাল আবাসিক বাসার ভিতরে অবৈধভাবে চালিয়ে যাচ্ছেন বিষাক্ত কয়েল এর ব্যবসা :তাদের গ্যাস সংযোগ টিও ব্যবহার হচ্ছে অবৈধভাবে।এই শিরোনামে একটি সংবাদ প্রকাশ করা হয় সংবাদটি তিতাস গ্যাস কর্তৃপক্ষের নজরে আসায়।আজ মঙ্গলবার (৩১ ডিসেম্বর) সকালে বশির আহম্মেদ এর মালিকানাধীন বাড়ীর নীচতলায় মশার কয়েল কারখানায় অবৈধভাবে নেওয়া সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে। এর পাশাপাশি তার নামে নেওয়া বৈধ সংযোগটিও সাময়িকভাবে বিচ্ছিন্ন করেছে।

এব্যাপারে সাভার তিতাস গ্যাস দিস্ট্রিবিউশন এন্ড ট্রান্সমিশন জোনাল অফিসের  প্রকৌশলী আবু সাদাত মোঃ সায়েম জানান, এই বাড়ীর মালিক নিজের বৈধ সংযোগ থেকে যেহেতু অবৈধভাবে কয়েল কারখানার ‘ড্রায়ার রুম’ এ পাইপলাইন দিয়ে সংযোগ দিয়েছেন, সেহেতু বাংলাদেশ গ্যাস আইনে অপরাধ করেছেন। এজন্য অবৈধভাবে নেওয়া সংযোগটি সম্পূর্ণ বিচ্ছিন্ন সহ তার বৈধ সংযোগটিও সাময়িকভাবে বিচ্ছিন্ন করা হয়েছে। তার বিরুদ্ধে তিতাস কর্তৃপক্ষ আইনী ব্যবস্থা নেবে বলেও এসময় সাংবাদিকদের জানান ।

আজ সকালে তিতাসের অভিযান পরিচালনা করতে গেলে অবৈধ কয়েল কারখানাটির মূল গেটে বাইরে থেকে তালা বদ্ধ অবস্থায় পাওয়া যায়। পরে পুলিশের উপস্থিতিতে তালা ভেঙ্গে প্রবেশ করে দেখা যায়, কয়েল কারখানায় কর্মরত শ্রমিকরা একটি কক্ষের ভিতর লুকিয়ে আছে। এসময় পুলিশ তাদেরকে বের করে আনে। ভিতরের ‘ড্রায়ার রুম’টি ও তালাবদ্ধ থাকায় পুলিশের উপস্থিতিতে তালা ভেঙ্গে অবৈধ সংযোগটির সন্ধান পায় তিতাসের কর্তৃপক্ষ ।

তবে পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে অবৈধ মশার কয়েল কারখানার ম্যানেজার হাবিব ও বাড়িওয়ালা বশির আহম্মেদ ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে যান পরে তাদের মুঠোফোনে কল করা হলেও তারা কল রিসিভ করে নাই।

এই ঘটনায় তিতাস গ্যাস ডিস্ট্রিবিউশন এন্ড ট্রান্সমিশন সাভার জোনাল অফিসের কর্মকর্তা প্রকৌশলী আবু সাদাত মোহাম্মদ সায়েম জানান ,অবৈধভাবে গ্যাস লাইন ব্যবহার করার কারণে বাড়িওয়ালা বশির আহমেদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে ।

 

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here