কারো অপকর্মের দায় কেউ নেবে না :আতিকুল ইসলাম।

0
30

নিজস্ব প্রতিবেদক 

 

কমিউনিটি পুলিশিং ডে উপলক্ষে শনিবার তিতুমীর কলেজে আয়োজিত সমাবেশে উপস্থিত হন ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন মেয়র মোঃ আতিকুল ইসলাম।এই অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন ঢাকা ১১ আসনের সংসদ সদস্য একেএম রহমত উল্লাহ, ঢাকা ১৭ আসনের সংসদ সদস্য আকবর হোসেন খান পাঠান ফারুক,ঢাকা মহানগর পুলিশের যুগ্ম কমিশনার শেখ নাজমুল আলম,সরকারি তিতুমীর কলেজের অধ্যক্ষ আশরাফ আলম, পুলিশের ডিপ্লোমেটিক সিকিউরিটি বিভাগের উপ-কমিশনার বিপ্লব বিজয় তালুকদার,গুলশান বিভাগের উপ-কমিশনার সুদীপ  কুমার চক্রবর্তী,চিত্রনায়ক রিয়াজ, ও সংগীতশিল্পী শুভ্রদেব।

 

এই শুধি সমাবেশের আয়োজনের বক্তব্যে মেয়র আতিকুল ইসলাম বলেন, কোন কাউন্সিলরের অপকর্মের দায় সিটি কর্পোরেশন নিবেনা।

 

আরো জানান অবৈধ ক্যাসিনো  পরিচালনায় ঢাকার দক্ষিণে এক কাউন্সিলরের নাম আসায় র‍্যাব তাকে  আটক করে। সাথে অন্যান্য অভিযোগের কারণে আরও এক কাউন্সিলর কে র‍্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটেলিয়ান( র‍্যাব  )আটক করে। তবে  আমাদের সরকারের এই শুদ্ধি অভিযানে অনেক কাউন্সিলর গা ঢাকা  দিয়েছেন।এ সময় মেয়র বলেন এই বিতর্কিত কাউন্সিলরদের জন্য আসলে আমার দুঃখ হয়।

 

তিনি বলেন,ফুটপাত উচ্ছেদ করতে গেলে ৯৯ ভাগ লোক খুশি হয়,বাকি ১ ভাগ লোক অখুশি হন।এদের এই একভাগ লোকেই ফুটপাতে ব্যবসা করে চাঁদাবাজি করে,এদের আজব কিছু ঘটনা দেখলে আমি অবাক হই, ফুটপাত দখল করতে কিছুকিছু চাঁদাবাজের ছবি ব্যানার টানিয়ে রাখা হয়।এ ব্যাপারে মেয়র বলেন আমাদের অবস্থান পরিষ্কার,আমরা দখলকারীদের প্রশ্রয় দেবো না।

 

মেয়র আতিকুল ইসলাম আরো জানান,কেউ যদি মাদক ব্যবসা করে, চাঁদাবাজি করে,দখলদারি করে,আইন শৃঙ্খলা বাহিনী তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেক।এ ধরনের ঘটনায় কিছু বলার নেই, যার যার  অপকর্মের দায় সে সে ভোগ করবে।”আমি চাঁদাবাজি করিনা আমি কাউকে কাদাও দেই না “।

 

কমিউনিটি পুলিশিং এর সুধী সমাবেশে অপরাধ জঙ্গিবাদ মাদক ব্যবহার কমিয়ে আনতে কমিউনিটি পুলিশের গুরুত্ব তুলে ধরেন। সাথে সাথে এসব ঘটনায় জড়িতদের আইনের আওতায় আনতে পুলিশকে নাগরিকদের সহায়তা করার জন্য আহ্বান জানান।

পুলিশের গুলশান বিভাগের আয়োজিত  এই সুধি সমাবেশে;ডিএনসিসির ১৮ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর জাকির হোসেন বলেন, গুলশানের আশপাশে কিছু এলাকার  সড়কে কিছু সিসি ক্যামেরা বসানোর জন্য মেয়র এর প্রতি  আহ্বান জানান।তিনি বলেন বাড্ডা, ভাটারা, কালাচাঁদপুর,ও মহাখালী এলাকার সড়কে কিছু সিসি ক্যামেরা বসালে এসব এলাকার কিছু অপরাধ চক্র কে নিয়ন্ত্রণে রাখা সম্ভব হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here